Archive for ‘খেলাধুলা’

June 4, 2013

তারেকের কাছে ক্ষমা চাইলেন আশরাফুল

আশরাফুল

আশরাফুল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ::

প্রথমে আশরাফুল বললেন, “পুরো বিষয়টার সাথে নূর-এ-ক্রিকেট উৎপল শুভ্র’র কোন সম্পৃক্ততা নেই।” তারপর তিনি বলেন, “আমি তারেক ভাইয়ার কাছে ক্ষমা চাই।” বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ টেষ্ট সেঞ্চুরিয়ান মোহাম্মদ আশরাফুল আজ তার বাসায় সাংবাদিকদের সামনে এভাবেই বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ক্ষমা চান।

আশরাফুল বলেন, “প্রথমে বাজিকরদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছি। তারপর টাকা খরচ করেছি। টাকা শেষ হওয়ার পর উৎপল শুভ্র আমাকে বলেছে তোমাকে আমি টাকা দিবো, তুমি আকসুর কাছে যাও। আমি বললাম কত টাকা? উৎপল দা ক্যালকুলেটরে বাটন টিপে টিপে টাকার অংক দেখান। আমি বলেছি এত কমে হবে না। উনার হাত থেকে ক্যালকুলেটর নিয়ে আমিও বাটন টিপে ডিমান্ড জানিয়ে দিই। দাদা বললেন ঠিক আছে দিবো। কিন্তু আরো তিনজনের নাম ঢুকিয়ে দিতে হবে। তখন আমি কবুল বলে আকসুর কাছে যাই।”

তিনি বলেন, “এরপর আকসু এসে আমাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাদেরকে সব বলে দিয়েছি যা যা উৎপল দা শিখিয়ে দিয়েছেন। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আকসু চলে যায়, আমিও চলে আসি। রাতের খাবার দাবার খেয়ে বিছানায় যাই। যখন বালিশে মাথা রাখি, তখনই ঘটনাটা ঘটে। প্রথমে আমার মাথায় দুইটা চক্কর খায়। তারপর বমি বমি ভাব হয়। কিন্তু বমি আসে নাই। ঠিক সে সময় আচমকা মনে পড়ে আমিতো তারেক ভাইয়াকে টেন পার্সেন্ট কার্টেসি দেই নাই!” এ সময় উৎপল শুভ্র চোখের জল ধরে রাখতে পারেননি। তিনি আশরাফুলের দিকে তাকিয়ে জল ছেড়ে দেন।

উৎপল শুভ্রের কান্না দেখে মানসিক চাপে পড়ে যান আশরাফুল। এ সময় শক্ত হাতে মাইক্রোফোন মুঠ করে ধরে চাপ সামাল দেন তিনি। চাপ সামাল দিয়ে বলেন, “তত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা ফিরে আসলে উৎপল শুভ্র আমাকে টাকা দিবেন। তারপর আমি হজ্জ্বে যাবো। ভাইয়াও হজ্জ্বে আসবেন। তখন আমি তাকে লেট ফি সহ টেন পার্সেন্ট কার্টেসি বুঝিয়ে দিবো।”

 

February 14, 2012

আমার সোনা কেটে আফগানিস্তানকে দিয়ে দিবো – ইউনিস খান

যা হবার তা পেছনের সাইডে হবে

বিনোদন প্রতিনিধি

পাকিস্তানী ক্রিকেটার ইউনিস খান বলেছেন, তার সোনা কেটে আফগানিস্তানকে দান করে দেবেন। কিন্তু কাজাখস্তান বা খিরগিস্তানকে দেবেন না। সাংবাদিকদের কাছে তিনি বলেন, “আমার সোনা কোন কাজে আসে না। গোলাম আজম, নিজামী, মুজাহিদের সোনাও কোন কাজে আসে না। ওদের সোনাও আফগানিস্তানকে দিয়ে দেয়া উচিত।”

এর আগে তিনি বলেন, “আইসিসির উচিত বাংলাদেশের টেস্ট স্টাটাস কেটে নিয়ে আফগানিস্তানকে দিয়ে দেয়া।” এসময় নিজের সোনার দিকে আংগুল তুলে তার কার্যকরহীনতার কথা দৃঢ়ভাবে উল্লেখ করেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ইউনিস খান বলেন, “গেলমানের সোনা লাগে না। পশ্চাৎদেশ থাকলেই হয়। আমাদের পশ্চাৎদেশে কামনা জাগলে তখন বাংলাদেশ নিয়ে চোদনা টাইপের কথা বলি। এরপর বাঙালিরা আমাদেরকে অকথ্য বলাৎকার করে। তখন আমরা শীৎকার করি। শীৎকার করতে আমাদের ভালো লাগে।”

কিন্তু এতো বেশি বাঙালির চাপ অল্প সংখ্যক পাকিস্তানি সহ্য করতে পারবে কিনা, এমন প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, “বাংলাদেশেও আমাদের কিছু প্রতিনিধি আছে। ফলত বিষয়টা আমাদের জন্য বেশ সহনীয় মাত্রার হয়ে উঠবে।”

অবশ্য কৌশলগত কারণে ড. আসিফ নজরুলকে এ বিষয়ে টকশোতে কিছু না বলার অনুরোধ করেন। কারণ সুশীল গেলমানদের সামনে পেছনে উভয় সাইড ফিট থাকতে হয়। নইলে সুশীলগিরী ঠিক জমে উঠে না বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে ইউনিস খানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, “আমাকে নিয়ে নিউজ করতে শব্দচয়নের দিকে বিশেষ খেয়াল রাখবেন। সব যায়গায় হিউমার চোদাইয়েন না। আমি যা চাই তা দিতে হবে, নইলে সম্পাদকের সোনা কেটে আমার জন্য নিয়ে আসবো!” এমন হুমকীর পর থেকে দৈনিক মগবাজার সম্পাদক কোমরে হেলমেট পরে আছেন।

 

December 26, 2011

অধিনায়ক থেকে মুশফিকুর রহিম বাদ

নতুন অধিনায়ক লোটাস কামাল

স্পোর্টস করসপন্ডেন্ট

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে আবারো অধিনায়ক পরিবর্তন হতে যাচ্ছে। বর্তমান অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমকে ইতোমধ্যে বরখাস্ত করা হয়েছে। অধিনায়ক নির্বাচনের সংস্কৃতি অনুযায়ী সহ-অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ নতুন অধিনায়ক হওয়ার কথা থাকলেও তা হচ্ছে না। অধিনায়ক নির্বাচনে বিসিবি এবার চমক দিতে যাচ্ছে।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে বর্তমান বোর্ড সভাপতি লোটাস কামলই হতে যাচ্ছেন ক্রিকেট দলের নতুন অধিনায়ক। বিশ্বে এই প্রথম ক্রিকেট বোর্ড সভাপতিকে অধিনায়ক নির্বাচিত করা হচ্ছে। ফলে দল আরো একজন অলরাউন্ডার পেতে যাচ্ছে। লোটাস কামাল বর্তমানে আশরাফুলের কাছে ব্যাটিং এবং শাহাদাত হোসেনের কাছে বোলিং শিখছেন। মুশফিকের কাছ থেকে কিপিংটাও শিখে নিচ্ছেন। যাতে করে দলের বিপর্যয়ে উইকেটের পেছনে থেকে হাল ধরতে পারেন।

এ বিষয়ে আমরা যোগাযোগ করি লোটাস কামালের সাথে। তিনি দৈনিক মগবাজারকে জানান, “সাকিবের পর মুশফিককে দিয়ে দেখলাম, সেও ব্যর্থ। নতুন কারো প্রতি আস্থা রাখতে পারছি না বলে নিজেই নেতৃত্বের ভারটা নিতে হচ্ছে।”

কুমিল্লার ছেলে লোটাস তার অধিনায়ক জীবনের প্রথম ম্যাচ খেলবেন প্রতিবেশী নোয়াখালী জাতীয় দলের সাথে। তাই রাত জেগে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের ভিডিও ফুটেজ দেখতে ব্যস্ত আছেন লোটাস কামাল। এখনো আনুষ্ঠানিক ঘোষনা না আসলেও নতুন অধিনায়ককে স্বাগত জানিয়েছেন সদ্য সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

December 12, 2011

আশরাফুলকে নিয়ে মুভি বানাবেন স্টিভেন স্পিলবার্গ

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ক্রিকেটার আশরাফুল

স্পোর্টস প্রতিনিধি

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ক্রিকেটার মো: আশরাফুলকে নিয়ে মুভি বানানোর ঘোষনা দিয়েছেন হলিউডের লিজেন্ড মুভিমেকার স্টিভেন স্পিলবার্গ। আজ এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে ডিম্বাকৃতির কেক কেটে তিনি এ ঘোষনা দেন।

মুভিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করবেন শ্রী রজনীকান্ত। এর আগে শচীন টেন্ডুলকারকে নিয়ে মুভির নাম ভূমিকায় অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন দক্ষিণ গ্রহের এ অলৌকিক অভিনেতা।

স্টিভেন স্পিলবার্গ উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, রজনীকান্তের অনুরোধে (ইচ্ছায়) তিনি এ মুভি বানাচ্ছেন। ১ ঘন্টার এ মুভিতে আশরাফুল সব ক’টি টেস্ট খেলুড়ে দলের সাথে ১টি করে টেস্ট ম্যাচ খেলবেন।

ওয়ানডে কিংবা সাম্প্রতিক সময়ের জনপ্রিয় টি২০ ম্যাচ খেলা হবে না কেন, এমন প্রশ্নের জবাবে স্পিলবার্গ বলেন, “৩,৬০০ সেকেন্ডের এত লম্বা সময়ে সীমিত ওভার কিংবা টি২০ খেলে রজনীকান্তের পোষায় না। রজনীর লাইফে সীমিত বলে কোন শব্দ নেই।”

“জিরো ইনফিনিটি” নামের এ মুভিতে আরো অভিনয়ে করেছেন রজনীকান্ত এবং রজনীকান্ত। অতিথি অভিনেতা হিসেবে আছেন রজনীকান্ত। এছাড়াও একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন রজনীকান্ত।

 

December 8, 2011

ভারত একটি দরিদ্র দেশ : পাটমন্ত্রী

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী

নিজস্ব সংবাদদাতা

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী বলেছেন “ভারত একটি দরিদ্র দেশ, বাংলাদেশের উচিত ভারতের জনগণের পাশে দাঁড়ানো। প্রতিবেশী হিসেবে এটা আমাদের কর্তব্য।”

“ভারতীয় মেয়েদের মিনি স্কার্ট এবং প্রতিবেশী দেশের লজ্জা” শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

সম্প্রতি সরকারের নেয়া এক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখন থেকে বাংলাদেশের পাট কেবল ভারতে যাবে, বিশ্বের আর কোন দেশে বাংলাদেশ পাট রপ্তানি করবে না। বস্ত্র ও পাট মন্ত্রনালয়ের এমন সিদ্ধান্তকে আত্মঘাতী বলছে বিশ্লেষকরা।

এ বিষয়ে মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী বলেন, “আওয়ামীলীগের কোন ভুল নেই। পাট নিয়ে সরকারের এমন সিদ্ধান্ত দেশের ভাবমূর্তী উজ্জ্বল করবে। অহেতুক কিছু লোক বিরোধিতা করছে।”

সরকার হঠাৎ কেন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে, জানতে চাইলে মন্ত্রী জানান “ভারতের মানুষ বেশ দরিদ্র। ওরা টাকার অভাবে জামা কাপড় কিনতে পারে না। সাধারণ মানুষতো বটেই, বলিউডের মেয়েরাও টাকার অভাবে ভালো জামা কিনতে পারে না। ছোটছোট জামা পরে দিন কাটাতে হয়।”

মন্ত্রী বলেন, “আমাদের দেশ থেকে পাট গেলে সেখান থেকে সূতা হবে। এরপর সে সুতা দিয়ে জামা বানিয়ে ওরা পরবে।”

এ নিয়ে বিতর্কের কোন অবকাশ নেই বলে দাবি করেন মন্ত্রী লতিফ সিদ্দীকী।

December 4, 2011

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বিদ্রুপের প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র শিবির

দৈনিক মগবাজার সম্পাদককে খুঁজছে শিবির কর্মীরা

টিপাইমুখে বাঁধ ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে করা একটি বিদ্রুপাত্মক সংবাদের নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র শিবির। ইসলামি ছাত্র শিবিরের কর্মীরা মনে করে এমন নিউজ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তীব্র অপমান করা হয়েছে। শিবিরের এমন দাবির সাথে সংহতি প্রকাশ করেছে জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। এ ধরনের প্রতিবাদ এবং প্রতিবাদের সাথে সংহতি প্রকাশের ঘটনা মূলত অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিএনপি-জামাত শিবিরের কর্মীদের মাঝে ঘটেছে।

বিভিন্ন বাংলা ব্লগ সাইট এবং ফেসবুকে দৈনিক মগবাজারে প্রকাশিত এ নিউজটি নিয়ে তীব্র সমালোচনা চলে। প্রতিবাদকারী বিএনপি-জামাত সমর্থকদের মতে “টিপাইমুখে বাঁধ সম্পূর্ণ ভারতের আভ্যন্তরীণ বিষয়। এর সাথে আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে জড়িত করার কোন মানে নেই।”

এ বিষয়ে ব্লগে লেখার পাশাপাশি র‌্যাব এবং পুলিশকে ইনফর্ম করেছে শিবির কর্মীরা। র‌্যাবের কাছে এক আবেদনে শিবির কর্মীরা বলেন, “দৈনিক মগবাজার আমাদের পশ্চাৎদেশের মানচিত্র বদলে দিয়েছে। এতোদিন কিছু বলিনি। এবার প্রধানমন্ত্রীকে অপমান করেছে। এই সুযোগে দেন না দৈনিক মগবাজারটা বন্ধ করে… প্লীজ দেন্না!”

প্রতিবেদকের বক্তব্য :

বিএনপি-জামাত কর্মী সমর্থকদের প্রতিবাদের মুখে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে করা নিউজটি মুছে দেয়া হয়েছে। প্রতিবাদকারীদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে এখন থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আর কোন ব্যাঙ্গ বিদ্রুপ করা হবে না বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আমরা কেবল জামাতী কুত্তার বাচ্চা ও তাদের মিত্রদের নিয়ে বিদ্রুপ করবো। প্রধানমন্ত্রীর সম্মান নিয়ে বিএনপি-জামাতপন্থীদের দরদ দেখে এ প্রতিবেদকের ঘন ঘন প্রস্রাব হচ্ছে। আমি আবিভূত।

October 5, 2011

ফাইনালের জন্য দল ঘোষনা করেছে আ.লীগ, খেলোয়াড় সংকটে বিএনপি

মগবাজার এক্সক্লুসিভ

কিছুদিন আগে বিএনপির হায়! কমান্ড আওয়ামী লীগের সাথে ফাইনাল খেলার প্রস্তাব দিলে সরকার দলের নেতারা তা সাদরে গ্রহণ করে। এর পরপরই দল ঘোষনা করে আওয়ামী লীগ। ক্ষমতাসীন দলের একাদশ নির্বাচনে রীতিমত চমক দেন প্রধান নির্বাচক শামসুল হক টুকু।

দলটি ফাইনাল খেলার প্রস্তাব গ্রহণ করলেও খুব একটা গুরুত্ব দিচ্ছে না। তাই পুরো দলের বেশিরভাগ খেলোয়াড়কে বিশ্রামে রেখে মাত্র  ২ খেলোয়াড় নিয়ে মাঠে নামবে তারকা সমৃদ্ধ এ দল। ছাত্রলীগের অধিনায়কত্বে মাঠে থাকবে যুবলীগও। স্টান্ডবাই হিসেবে থাকছে স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদীয়মান তারকারা।

অনুশীলন ম্যাচের প্রথমার্ধে প্রতিপক্ষের গোলপোস্টে ছাত্রলীগের দাপুটে আক্রমন

এরই মধ্যে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে ছাত্রলীগ। সম্প্রতি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে অনুশীল ম্যাচে অংশ নিয়ে প্রথমার্ধে এগিয়ে থেকেও দ্বিতীয়ার্ধের বাজে পারফরম্যান্সের কারণে ১০-২ গোলে পরাজয় বরণ করে নেয়। গ্যালারি ভর্তি সমর্থক নিয়েও এরকম শোচনীয় পরাজয়ের কারণ অনুসন্ধানে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

read more »

July 14, 2011

তাবলীগে গেলেন হোসনে আরা বেগম

বিশেষ পাকিবেদক ।। ১৪ জুলাই ২০১১

বহিষ্কৃত হওয়ার ২ দিনের মাথায় ৯০ দিনের চিল্লায় গেলেন ভিকারুন্নিসা নুন স্কুল অ্যান্ড কলেজের গ্রেফতারকৃত শিক্ষক পরিমল জয়ধরের বান্ধবী হোসনে আরা বেগম। উল্লেখ্য পরিমলের বান্ধবীর চাকুরির পাশাপাশি তিনি পার্টটাইম জব হিসেবে একই প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষার চাকুরিও করতেন।

ব্যক্তি জীবনে অত্যন্ত মিউচুয়াল এ রমনী এখন তাবলীগের পথে রওনা দিয়েছেন। যাবার আগে দৈনিক মগবাজারের সাথে একান্ত আলাপে তিনি বলেন “৯০ দিন হচ্ছে একটি পবিত্র সময়ের প্যাকেজ। এ প্যাকেজের আওতায় ফখরুদ্দিনও ক্ষমতায় ছিলেন।” তিনি আরো বলেন, “গর্ভবতীকালীন অথবা অন্তবর্তকালীন যাই বলুন না কেন, এ বয়সে এসে এ ধরনের একটি মিউচুয়াল ট্রিপ নেয়া খুব জরুরী।”

ব্যক্তিগত কিছু সরঞ্জামাদি ব্যাগে ভরতে ভরতে হোসনে আরা অনেকটা দু:খের সাথে বললেন, “আমার বন্ধু রাশেদ দেশে নেই, পরিমলও পাশে নেই। আমি আসলে ভেঙ্গে পড়তে চাই না। আমার বিশ্বাস অন্তবর্তীকালীন সময়ে বন্ধুর অভাব হবে না।”

এদিকে জনাব পরিমলের সাথে যোগাযোগ করলে ভদ্রলোক কাগজে একটি ছড়া লিখে পাঠান –

“ওরে হোসনে, ওরে আরা

যাচ্ছিস বুঝি তাবলীগে?

ভালো থাকিস, সামলে রাখিস

নইলে খাবে পাবলিকে!”

ছড়াটি পড়ে শুনানোর পর হোসনে আরা দু’চোখের জল ধরে রাখতে পারেননি। তিনি বলেন, “পরিমল অকালে ঝরে গেলো। চলে গেলো। যাবার আগে কয়েকটি মেমোরি কার্ড ছাড়া আর কিছুই রেখে যেতে পারলো না। আমি এখন কি নিয়ে বেঁচে থাকবো?” এসময় তিনি কান্না করতে করতে এ পাকিবেদকের গায়ের উপর ভেঙে পড়েন। এরপর তিনি এভাবে কিছুক্ষণ পড়ে থাকেন।

April 11, 2011

সিডন্সের সাথে চলে যাবেন রকিবুল ইমরুল

কান্নায় ভেঙে পড়ে পুরো জাতি, যখন শুনলো রকু ইমু আর নেই!!

ক্রীড়া পাকিবেদক ।। ১১ এপ্রিল ২০১১

বাণিজ্যটা প্রায় ৭’শ কোটি ডলারের। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল কিনে নিলো বাংলাদেশের সেরা দু’ব্যাটসম্যান রকিবুল হাসান এবং ইমরুল কায়েসকে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বর্তমান কোচ জেমি সিডন্সের মধ্যস্থতায় এ বেচাকেনার ঘটনা ঘটে।

অসি ক্রিকেট বোর্ডের এক মুখপত্র জানান, “রকু এবং ইমু আসলে ভিনগ্রহের খেলোয়াড়। ভুলবশত বাংলাদেশে চলে আসেন। কিন্তু এদেশের মানুষ ভালো খেলোয়াড়ের কদর করতে জানে না। এদের মতো ব্যাটসম্যানরা পুরো জাতির দিকে তাকিয়ে থাকে, আর বদমায়েশ জাতি তাকিয়ে থাকে ওদের পাছার দিকে। সুযোগ পেলেই যেন গদামে ভাসিয়ে দেবে।“

সিডন্স বলেন, “আমি আগেও বলেছি এখনও বলছি, রকু এবং ইমু’র মতো খেলোয়াড় বাংলাদেশে আর কখনোই জন্মাবে না। আমি ওদেরকে অস্ট্রেলিয়া নিয়ে যাচ্ছি, ওটাই ওদের আসল যায়গা। এরকম গরু (গুরু) ভক্ত খেলোয়াড় আমি খুবই কম দেখেছি।“

রেডিও আল জাজিরায় বেচাকেনার দৃশ্যটি সরাসরি সম্প্রচারিত হবার পর অসি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক পায় ১ জগ পানি খেয়েছেন। তিনি বলেছেন এক চরম অনিশ্চয়তার কথা। “ভয়টা আমার ক্যাপ্টেন্সি নিয়ে। ইমু আর রকুর মাঝে যে নূরানী ফোকাস আমি দেখেছি, অসি ক্রিকেট বোর্ড না আবার আমাকে সরিয়ে এদের কাউকে অধিনায়ক বানিয়ে দেয়।“

ক’দিন পর সিডন্সের বেলা শেষ হয়ে যাবে। তিনি চলে যাবেন। তবে যাবার সময় আমাদের রকু আর ইমুকে নিয়ে যাবেন। ওই দিন জাতীয় শোক দিবস পালিত হবে কিনা, এ নিয়ে ঢাকা ওয়াসায় চলমান বৈঠকের কোন আপডেট এখনো আমাদের হাতে আসেনি।

April 9, 2011

ছাগল খাসি কেনার জন্য ৫ উইকেট হাতে রেখেছে

আমি এখন আসি, রাতে খাবো খাসি - ইমরুল

ক্রীড়া পাকিবেদক ।। ৯ এপ্রিল ২০১১

অস্ট্রেলিয়ার সাথে আজকের ক্রিকেট ম্যাচে স্রেফ ছাগল খাসি কেনার জন্য ৫উইকেট হাতে রেখে ৬০ রানের পরাজয় মেনে নেয় বাংলাদেশ দল। অস্ট্রেলিয়া সকালে ব্যাট করে মাইকেল ক্লার্ক এর সেঞ্চুরির সুবাধে ২৭০ রান করে ৭ উইকেট হারিয়ে। জবাব দিতে নেমে তামিম ইকবালের রগে টান খাওয়ার কারণে বাংলাদেশ হোঁচট খেয়ে বসে। এরপর কলেরা শুরু হয়। ইমরুল কায়েসের তলপেটে ব্যাথা শুরু হলে বদনা খুঁজতে মাঠের বাইরে গিয়ে আর ফিরে আসেননি। শাহরিয়ার নাফিসের পেছনে বেঁধে আসা পলিব্যাগ নড়চড় করার কারণে অস্থির এক আউট হয়ে চলে যান। রগে অস্যহ্য ব্যাথা নিয়ে অধিনায়ক সাকিবকে সাথে নিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ের মতো চলছিলো গাড়ি হোগার বাড়ি।

এভাবে চলতে চলতে ছাগলের রানের মাংস চোখের সামনে ভাসতেই শেষ ৫ ওভারে কোমরে আচকা জোর পায় মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। যদিও ৬০ রানের পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ দল।

আউট হয়ে মাঠের বাইরে আসার পর সাংবাদিকদের কাছে অধিনায়ক সাকিব বলেন, “বিশ্বকাপে খেসারীর ডাল দিয়ে খেতে খেতে পাকস্থলীতে ছোটছোট খাদাখন্দ সৃষ্টি হয়েছে। আমরা ঠিক করেছি এবার ছাগল খাসি খাবো। তাই ৫ উইকেট বাঁচিয়ে রেখেছি। সন্ধ্যায় মগবাজার গিয়ে খাসি কিনে রাতের বেলা খাবো। আশা করি পরবর্তী ম্যাচে ভালো করতে পারবো। এ ম্যাচের ভুলগুলো থেকে শিক্ষা নিতে পারলে আরো উন্নতি করা সম্ভব। তবে অস্ট্রেলিয়া অনেক ভালো খেলেছে। বাংলাদেশের মতো দলের ৫ উইকেট ফেলে দিয়ে ওরা ওদের সামর্থ্য আবারো প্রমাণ করেছে।

দিন দিন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট আরো উন্নতি করবে বলে সাকিব বিশ্বাস করেন। এবং তিনি মনে করেন, বাংলাদেশের সাথে খেলে অস্ট্রেলিয়ার অনেক কিছু শেখার আছে।

%d bloggers like this: