পহেলা বৈশাখে সেমাই ফিরনি খাবেন খালেদা জিয়া

হুর সর্দারনী বেগম খালেদা আজম

নিজস্ব প্রতিনিধি

আসন্ন পবিত্র পহেলা বৈশাখ সকালে বৈশাখী নামাজ শেষে সেমাই ফিরনি খাবেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা আজম। ‘জাতীয়তাবাদী মুসলিম সংস্কৃতি এবং মালাউন প্রেক্ষিত’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন “আমি মালাউন নই, পান্তা ভাত খাবো না। বেলা ১২টায় ঘুম থেকে উঠে ফজরের নামাজ পড়ে দিন শুরু করি। আমি মুসলমান, তাই সেমাই ফিরনি খাবো।”

বেগম জিয়া বলেন, “যারা মালাউন, তারা স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় সংগীত পাঠ করে। আমি মুসলমান তাই শোকরানা নামাজ আদায় করি।” জাতীয় দিবস সমূহে আইন করে শোকরানা নামাজ পড়া বাধ্যতামূলক করা হবে। এ প্রসংগে বলেন, “নিজে পড়তে না পারলে উপদেষ্টা দিয়ে পড়াতে হবে।”

বলতে বলতে বেগম জিয়া আরো বলেন, “অনেকেই আমার বেশভুষা নিয়ে কথা বলেন। এটা বেদায়াত। বেশভুষা নিয়ে কথা বলা যাবে না। আমি সুন্দরী নারী। সুন্দরী নারীরা হুরের মতো। তাই হুরের বেশে থাকি। এটা আমার গণতান্ত্রিক অধিকার।”

বিএনপি ক্ষমতায় আসলে জাতীয় সংগীত পরিবর্তন করার চেষ্টা করবেন বলে জানান তিনি। বেগম জিয়া মনে করেন, যেহেতু দাঁড়িওয়ালা লোকের গানকে জাতীয় সংগীত বানাতে হবে, সেহেতু আমাদের দেশীয় দাঁড়িওলারাই উত্তম। মহাকবি দেলোয়ার হোসাইন সাঈদী, জাতীয় কবি আল মাহমুদ, নাগরিক কবি মতিউর রহমান মল্লিকেরও দাঁড়ি আছে। তারাও কবিতা টবিতা লেখেন। একটা বেছে দিয়ে দেয়া যাবে।

কবি নজরুলের দাঁড়ি নেই বলে তাকে উপেক্ষা করা হয়েছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বেগম খালেদা আজম। বেগম জিয়া বলেন, “ফালুর দাঁড়ি নাই, শফিকেরও দাঁড়ি নাই। আমিতো তাদের ফেলতে পারি না, তাই না?”

One Comment to “পহেলা বৈশাখে সেমাই ফিরনি খাবেন খালেদা জিয়া”

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: