ই-ভোটিং কোনোভাবেই মানা হবে না: খালেদা

এমন দৃশ্য ভুলতে পারবেন না আমাদের তারেকের মা

রাজনৈতিক পাকিবেদক ।। ২৯ এপ্রিল ২০১১

সংসদ নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং কোনোভাবেই মেনে নেবেন না বলে জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার রাতে এক অনুষ্ঠানে দলটির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেন, “জাতীয়তাবাদী নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনের করতে হবে। ইলেক্ট্রনিক ভোটিং কোনোভাবে মেনে নেওয়া হবে না। ভোট দিতে গেলে দেশের নিরীহ মানুষ শর্ট সার্কিটে মারা যেতে পারে। জেনেশুনে আমার প্রাণপ্রিয় জনগনকে এ বিপদে ফেলতে পারি না। ”

আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থার রাখার দাবিও জানিয়েছেন তিনি।

দেশে ‘নব্য বাকশাল’ চেপে বসেছে বলেও দাবি করেন খালেদা জিয়া।  বৃহস্পতিবার রাতে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নেতাদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এই অভিযোগ করেন।

গত ১ মার্চ নির্বাচন কমিশনার এম সাখাওয়াত হোসেন বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনে সবকটি আসনে অথবা বড় পরিসরে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে আধুনিক প্রযুক্তি হিসেবে ই-ভোটিং পদ্ধতি চালুর সিদ্ধান্ত আমরা ইতোমধ্যে নিয়েছি। এর প্রাথমিক উদ্যোগ হিসেবে বুয়েট ও বিএমটিএফকে এ বিষয়ে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য বলা হয়েছে।

খালেদা জিয়া বলেন, “আমরা আমাদের প্রথম মেয়াদে সাবমেরিন ক্যাবলে যুক্ত না হয়ে দেশের তথ্যসম্পদ রক্ষা করেছি। আর বাকশালী সরকার এখন বঙ্গোপোসাগরের তল দিয়ে সব তথ্য ভারতকে দিয়ে দিচ্ছে।”

দেশে এখন ইন্টারনেট আগ্রাসন চলছে, এমন দাবি করে দেশনেত্রী বলেন, “দেশের তরুন সমাজ ইন্টারনেটে পর্নোগ্রাফির দিকে ঝুঁকে পড়েছে। খালি আমার ড্রয়ারে পর্ণো ম্যাগাজিন থাকলেই দোষ।”

এর থেকে উত্তরণে মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবি পুনরুল্লেখ করে সবাইকে রাস্তায় নামার আহবানও জানান তিনি।

One Comment to “ই-ভোটিং কোনোভাবেই মানা হবে না: খালেদা”

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: