শেয়ার বাজার নিয়ে মাননীয় অর্থমন্ত্রীর সাক্ষাতকার

শেয়ার বাজারে যে এতো সুখ, জানা ছিলো না আগে...

আমাদের আমন্ত্রনে মাননীয় অর্থমন্ত্রী দৈনিক মগবাজারের কার্যালয়ে এসেছিলেন। হৃদ্যতাপূর্ণ সরকারি আন্তরিকতায় ভরপুর একটি মর্নিং কাটিয়ে গেলেন। বুকের বোতাম খুলে কথা বলে গেছেন প্রায় ৮০ মিনিট। সেখানে ছিলো ছোট্ট একটি সাক্ষাতকার। সাক্ষাতকারের সাথে জড়িতদের নাম প্রকাশ না করে, পুরো সাক্ষাতকারটি তুলে দিলাম আপনাদের জন্য।

সম্প্রতি শেয়ার বাজার নিয়ে বহুত হাংকি পাংকি হলো, আপনার উপর কি খুব পেরেশানি গেছে?

একটি অশুভ চক্রের কালো হাত পড়েছে শেয়ার বাজারের উপর। আমরা আন্তরিকভাবে সে কালোহাত ভেঙে দেবো।

এসব যায়গায় কালো হাত পড়ে কেন? এ চক্রের হাত কি বিল্টইন কালো হয়?

সরকারের ভাবমূর্তি যারা নষ্ট করতে চায়, তারা কখনো ফর্সা এবং সুন্দর হতে পারে না।

আপনি বললেন আন্তরিকভাবে হাত ভেঙে দেবেন। মানে এমনভাবে ভাঙবেন, যাতে করে ওরা ব্যাথা না পায়?

আপনার প্রশ্নটি আমি বুঝতে পারিনি। তবে এ বিষয়ে সরকার খুব আন্তরিক।

শেয়ার বাজার কেলেংকারির তদন্ত প্রতিবেদন এখন আপনার হাতে। কি হতে পারে এ তদন্ত প্রতিবেদন দিয়ে?

যদি প্রয়োজন হয়, তবে অবশ্যই দোষীদের শাস্তির বিষয়টি বিবেচনা করবো। কিন্তু আমাদের এখন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন পুঁজিবাজার চাংগা রাখা। সে বিষয়ে সরকার খুব আন্তরিক।

যারা পুঁজিবাজার নিয়ে এ মশকরা করলো, প্রতিবেদনে তাদের নাম এসেছে, আপনি বলেছেন ওই নামগুলো প্রকাশ করবেন না। কেন?

এ নোংরা নামগুলো উচ্চারন করে আকাশ বাতাস দূষিত করতে চাই না। দেশের মানুষ এখন সুখে আছে। ওরা খাবে আর নির্মলেন্দু গুনের কবিতা পড়বে। কি দরকার এসব বাজে বিষয় নিয়ে মাথা ঘামানোর!

আপনাদের প্রধান দু’শরিকদল চায় নামগুলো প্রকাশ হোক, তাদের বিষয়টা কিভাবে দেখবেন?

বয়স হলে মানুষ অনেককিছুই বলে। দুইজন দুইটা স্কুলের চেয়ারম্যান। ওনাদের কথা রাখতে গেলে প্রত্যেকটা স্কুলের চেয়ারম্যান এগিয়ে আসবে মতামত জানানোর জন্য। তখন ভয়ংকর হল্লা লেগে যেতে পারে। জাতি আবার সংকটে পড়তে পারে। রাজধানীর যানযট এবং পানি সমস্যা বেড়ে যাবে যদি পুরোদেশ থেকে চেয়ারম্যানরা আসতে শুরু করেন।

শেষ পর্যন্ত প্রতিবেদনটি দিয়ে আসলে কি হবে? মানে এর শেষ গন্তব্য কোথায়?

দেখুন বিএনপি অলরেডী ঘোষনা দিয়েছে ক্ষমতায় আসলে ওরা আবার এ বিষয়ে তদন্ত করবে। দেখবেন ওরা তখন চক্রান্ত করে সব আওয়ামী লীগের লুকজনের নাম ঢুকিয়ে দেবে। জাতির বিরুদ্ধে খুব চিকন কিছু ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে বিরুধীদল।

আপনি বলেছেন তদন্ত প্রতিবেদনে যাদের নাম এসেছে তারা যতো ক্ষমতাশালীই হোক না কেন, ব্যবস্থা নেবেন। শোনা যাচ্ছে আপনার নামও নাকি আছে, এটা কি আসলে সত্য?

না না, আমি খালিদী সাহেবকে বলেছি আমার নাম যাতে করে না দেন। কি দরকার আমার আশিতে এভাবে ফাসিয়ে দেবার।

এর জন্য কি খালিদী সাহেবকে কোন মালপানি দেয়া লাগছে?

আমার মালের অভাব নেই। আল্লাহ আমাকে মাল দিয়েই বানিয়েছেন। খালিদী সাহেবের ভেতরে যায়গা থাকতে হবেতো। তবুও উনি চাইলে আমি না করতে পারবো না। এ বিষয়ে আামদের নেত্রীও খুব আন্তরিক। আমরা শেয়ার বাজার কেলেংকারির দানা টিপে মেরে ফেলবো।

দৈনিক মগবাজারের পক্ষ থেকে আপনাকে ধন্যবাদ

আপনাকেও ধন্যবাদ। একদিন অফিসে আসবেন, চা খেয়ে যাবেন।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: